বাতের ব্যথা কমানোর ঔষধ এবং বাতের ব্যাথা দূর করার ঘরোয়া উপায়

বাতের ব্যথা কমানোর ঔষধ

পোস্টসূচীপত্রবাতের ব্যথা কমানোর ঔষধ - দিন দিন আমাদের মধ্যে বয়সের ভারে শরীরের ক্ষমতা কমে যাওয়ায় বাতের ব্যথা একটি প্ৰদান সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়ে আছে। এই বাতের ব্যথার সমস্যা নিয়ে আমরা কম বেশি সবাই খুব জর্জরিত। তাই আমরা বাতের ব্যথা কমানোর ঔষধ নিয়ে কথা বলব। শুধু ঔষধ নিয়ে নই । 


আমরা আজকে আরো কথা বলব বাতের ব্যাথা থেকে মুক্তির উপায়, বাতের ব্যাথা কোথায় কোথায় হয় , আবহাওয়ার সঙ্গে হাঁটু কোমর ও বাতের ব্যথার কী সম্পর্ক, বাতের ব্যাথার লতাপাতা ঔষধের নাম, বাতের ব্যাথার ট্যাবলেট এর নাম, বাতের ব্যাথার দূর করার ঘরোয়া উপায় কি এই নিয়ে বিশদ আলোচনা করার চেস্টা করব। দয়া করে সঙ্গ দিবেন বন্ধুরা । 

বাতের ব্যাথা কেন হয় 


বাতের ব্যথা যেহেতু আমাদের প্রায় মানুষের দেখা যায় সেহেতু জানা দরকার যে কেন এই বাতের ব্যথা হয় এবং এই বাতের ব্যথা কথা থেকে সৃষ্টি হয়। বাতের ব্যথা নাম হলো রিউমাটয়েড আর্থ্রাইটিস (RA)। এটি হলো অটোমিউন ব্যাধি বা রোগ। 


আপনার শরীরের ইমিউন সিস্টেম আপনার জয়েন্ট গুলিকে যখন আক্রমণ করে তখন এই বাতের সমস্যা দেখা দেয় । তাছাড়া ও শরীরের ধীরে ধীরে যখন দুর্বল হয় তখন বা শরীরের যখন রোগ প্রতিরোদ ক্ষমতা কমে যায় তখন এইগুলি বেশি দেখা যায়।  

বাতের ব্যাথা কোথায় কোথায় হয়


আমাদের কে আগে খুঁজতে হবে বাতের ব্যথা কোথায় কোথায় হয় বা সৃষ্টি হয় । কোন জায়গায় আমাদের এই বাতের ব্যথা অনুভব বেশি হয় সেই দিকে একটু লক্ষ্য রাখতে হবে। তারপর আসি সচরাচর কোথায় কোথায় এই বাতের ব্যথা আমাদের দেখা যায় । 


বিশেষ করে আমরা বাতের ব্যথা অনুভব করি হচ্ছে জয়েন্টের আশেপাশে মাংসপেশীতে, শরীরের জয়েন্টে ব্যথা । ফুলে যায় অনেক সময়। আবার লিগামেন্ট ব্যথা হয়, গিটের ব্যথা, কোমরের ব্যথা বেশি পরিলক্ষিত হয়। তারপর আবার পায়ের গোঁড়ালি ও ব্যথা অনুভব করি। সকাল বেলা ঘুম থেকে উঠে হাতের পায়ের মাংস পেশিতে ব্যথা অনুভব হয়। এই সব জায়গায় আমাদের বিশেষ করে ব্যথা অনুভব হয় । 

আবহাওয়ার সঙ্গে হাঁটু, কোমর ও বাতের ব্যথার কী সম্পর্ক


আমাদের শরীর প্রকৃতির সাথে তাল মিলিয়ে চলে।  সেটি আপনি বিশ্বাস করেন কি না করেন জানিনা তবে সেই সম্পর্কে যুক্তরাষ্ট্রের একজন অর্থোপেডিক্স বিশেষজ্ঞ জানার চেষ্টা করেছেন এবং তিনি মানুষের মনের ভাবের উপর গবেষণা করেছেন এবং একটি সিদ্বান্ত নিয়েছেন। আবহাওয়ার সঙ্গে হাঁটু, কোমর ও বাতের ব্যথার সঙ্গে কি আদো কোন সম্পর্ক কি আছে ? 


বাতের ব্যথা কমানোর ঔষধ


এই প্রশ্ন অনেকে করেন এবং সমাধান খুজেঁন। যারা এই প্রশ্নের সম্মুখীন হয়ে বা হাঁটু, কোমর ও বাতের ব্যথার সমস্যা নিয়ে সমাধান খুজেঁন। তাদের নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটন বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থোপেডিকস অ্যান্ড স্পোর্টস মেডিসিনের সহযোগী অধ্যাপক ও গবেষক স্কট টেলফার এবং ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজির মিডিয়া ল্যাবের গবেষক নিক অব্রাডোভিস গবেষণা করে কিছু বিষয় লক্ষ্য করেছেন।


 তারা দেখেছেন যে বিভিন্ন সময়ে মানুষেরা এই হাঁটুর ব্যথা ও কোমরের ব্যথা নিয়ে ইন্টারনেটে সার্চ করেছেন। তার মধ্যে খুব অতি মাত্রায় মধ্যে ঠান্ডার মধ্যে কোমরের ব্যথা নিয়ে ১২ পয়েন্টের মত মানুষ ইন্টারনেটে খোঁজ করেন ব্যথার প্রতিকার নিয়ে আর ১৮ পয়েন্টের মানুষ সার্চ করেন হচ্ছে হাঁটুর ব্যথা নিয়ে। 


তার মানে হলো এই আবহাওয়ার সঙ্গে হাঁটু, কোমরের বাতের ব্যথা নিয়ে একটি সম্পর্কে আনুমানিক রয়েছে। বাংলাদেশের বিশিষ্ট বাতরোগ বিশেষজ্ঞ ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের রিউমাটোলজি বিভাগের অধ্যাপক সৈয়দ আতিকুল হক বলেন অমবস্যা এবং পূর্ণিমা তে মানুষের অস্থিসন্ধি বাতের ব্যথা খুব বৃদ্বি পায়। খুব যখন দেশের আদ্র আবহাওয়াতেও হাঁটু, কোমরের বাতের ব্যথা বৃদ্বি পে কারণ সে সময় রক্ত সঞ্চালন ব্যাহত হয় ।

বাতের ব্যাথার লতাপাতা ঔষধের নাম


বাতের ব্যথা আছে এই রকম দীর্ঘদিন ধরে ভোগছেন মানুষেরা অনেকদিন ঔষধ খেতে খেতে বিরক্ত হয়ে গেলে তখন লতাপাতা ঔষধ খুজেঁন। বাতের ব্যথা কমানোর ঔষধ হিসেবে লতাপাতা বা বিভিন্ন রকম তেলের মাধ্যমে ব্যথা উপশম করা যায়। তবে প্রাকৃতিক ভাবে ও অনেক চিকিৎসা রয়েছে যা আপনার বাতের ব্যথার জন্যে খুব উপকারী।  তার মধ্যে রয়েছে


নির্গুণ্ডি তেল : এটি এক জাতীয় তেল যা নিত্যদিন ত্বকে মালিশের মাধ্যমে আপনি ভাল উপকার পেতে পারেন।  ভাল ভাল মার্কেটে পেয়ে থাকবেন থাকবেন এই নির্গুণ্ডি তেল।  


হলুদ : হলুদ হলো প্রাকৃতিক এবং খুবই বহু রোগের ঔষধ। এই হলুদের প্রাকৃতিক গত ভাবে রূপান্তরিত ফলিক এসিড আপনার বাত কমানোর জন্যে খুব উপকারী।  বাতের ব্যথায় হলুদ শান্তির বার্তা বয়ে আনে।

আরও পড়ুন ঃ

কৃমির ঔষধ কতদিন পর পর খেতে হয় এবং শিশুদের কৃমির ঔষধ খাওয়ানোর নিয়ম ।

সরিষার তেল, অলিভ অয়েল, এবং নারকেল তেল : এইগুলি ও বিশেষ করে লতাপাতার মতোই আপনার বাতের জন্যে খুব সহযোগী। কারণ এই তেলগুলি তে মাস্টার্ড অনুবিশেষ হওয়াতে খুব শান্তি প্রদান করে মালিশের মাধ্যমে।


জলজীরন কষায় : বাতের ব্যথার জন্যে এই জলজীরন কষায় ও আপনার জন্যে খুব উপকারী একটি কষায় হতে পারে।  এটি জিরা, ধনিয়া এবং বাতাসা আরো কিছু মসলা সহিত এই গুনকারী উদ্ভিদের মিশ্রণ দিয়ে তৈরী।   

বাতের ব্যাথার ট্যাবলেট এর নাম


বাতের ব্যথা কমানোর ঔষধ এর মধ্যে অনেক রকম ট্যাবলেট রয়েছে। তবে তার মধ্যে দুই একটি ঔষধ খুব সুপরিচিত। ডাইক্লোমল ট্যাবলেট (Diclomol Tablet ) হচ্ছে বাতের ব্যথার জন্যে খুব জনপ্রিয় একটি ঔষধ। তবে আমরা সব সময় ডাক্তার কিংবা বাত ব্যথার বিশেষজ্ঞর কাছ থেকে পরামর্শ নেওয়ার জন্যে অনুরোধ করে থাকি পাঠকদের। 


যেহেতু এটি খুব পরিচিত একটি ঔষধ এবং বহুল ব্যবহৃত তাই আমরা এই সম্পর্কে বলার চেষ্টা করছি। এবং কি কারণে বাতের ব্যথার ট্যাবলেট খাবেন তাও বলার চেষ্টা করবো। যেমন খুব বেদনাদায়ক গাঁটের মত, ফোলা ভাব, জয়েন্টের ব্যথা, এবং অস্টিওআর্থ্রা‌ইটিসের সাথে যুক্ত এমন সব ব্যথা গুলির জন্যে বা উপসর্গ গুলির জন্যে এই ট্যাবলেট আপনি সেবন করতে পারেন ।

বাতের ব্যাথা দূর করার ঘরোয়া উপায়


বাতের ব্যথা কমানোর ঔষধ সম্পর্কে এই আর্টিকেলে আমরা শুধু এলোপ্যাথিক ঔষধ ছাড়া ও ঘরোয়া উপায়ে আপনি কিভাবে বাতের ব্যথার দূর করবেন তাও বলার চেস্টা করছি । তবে কিছু উপায় সম্পর্কে আমরা বলব যা চাইলে আপনি নিয়মিত অভ্যাস করতে পারেন । 


এবং আমি মনে করি বাতের ব্যাথার দূর করার ঘরোয়া উপায় হিসেবে এই পদ্বতিগুলি উত্তম উপায় । তাহলে চলুন আমরা কিছু টপিকের উপর ভিত্তি করে এই পদ্বতিগুলি পড়ে আসি ।

গরম কিংবা ঠান্ডা থেরাপি


বাতের ব্যথা কমানোর ঔষধ হিসেবে এবং বাতের ব্যথা দূর করার ঘরোয়া উপায় হিসেবে মোক্ষম উপায় হতে পারে এই গরম কিংবা ঠান্ডা থেরাপি । এই থেরাপির মধ্যে গরম পানি দিয়ে চ্যাঁকা দিলে আপনার ব্যথা সাময়িক ভাবে উপশম হতে বাধ্য । কারন যখন গরম পানি দিয়ে থেরাপি দেওয়া হয় তখন আপনার শরীরের গিরা গুলি শক্ত হয় না। আর শক্ত না হলে আপনি ব্যথা অনুভব করবেন না ।


বাতের ব্যথা কমানোর ঔষধ

অন্য দিকে ঠান্ডা বরফ দিয়ে বা আইসপ্যাক দিয়ে চাইলে আপনার বাতের ব্যথার জায়গায় থেরাপি দিতে পারেন। তাহলে ফলাফল হবে কি ?  আপনার প্রদাহ কমে যাবে । এবং ব্যথার কারনে যে পেশি গুলিতে আপনার খিঁচুনি হয় সেগুলি থেকে আপনি সাময়িক মুক্তি পাবেন ।     

শারীরিক ব্যায়াম


শারীরিক ব্যায়াম বাতের ব্যথার জন্যে যে কতবেশি উপকারি তা আর বলার কিছু নেই । এই শারীরিক ব্যায়াম, আপনার বাতের ব্যথা কমানোর ঔষধ হিসেবে বিশেষজ্ঞ রা দিয়ে থাকেন । 


প্রতিদিন শারীরিক ব্যায়াম আপনার মাংশপেশীগুলিকে খুব শক্ত করে।  যাতে আপনার শরীরের ভার মাংস পেশিগুলি বহন করার জন্যে প্রস্তুত হয়। তাই শারীরিক ব্যায়াম খুবই উপকারী। বাতের ব্যথা দূর করা ঘরোয়া উপায় হিসেবে।    

পর্যাপ্ত বিশ্রাম


মনে রাখবেন পর্যাপ্ত পরিমান বিশ্রাম না হলে আপনার বাতের ব্যথা দ্বিগুন হতে পারে। কেননা আপনার শরীর যদি পর্যাপ্ত পরিমান বিশ্রাম করতে না পারে তাহলে দুর্বলতার কারণে আপনার শরীরের ভার বহন করতে অক্ষম হবে।


আপনাকে খুব যন্ত্রনা দেবে এই বাতের ব্যাথা। আপনার বাতের ব্যথা শুরু হওয়ার পর যথেষ্ট পরিমান বিশ্রাম করবেন। এটি ও আপনার বাতের ব্যথা দূর করার জন্যে খুবই প্রয়োজন।  

সহায়ক যন্ত্রপাতি ব্যবহার


সহায়ক যন্ত্রপাতি বলতে আসলে আপনি চাইলে হাতের লাটি ব্যবহার করতে পারেন। কারণ আপনার যখন বাতের ব্যথা শুরু হবে তখন আপনার শরীরের উপর চাপ কমাতে হাতের লাঠি ব্যবহার করুন। এই লাঠি আপনার শরীরের ওজনের সহায়ক হবে । 


এছাড়াও কোমরের বাতের ব্যথার জন্যে বেল্ট পড়তে পারেন। এইভাবে নিজেকে একটু সচেতনতার সাথে সহায়ক যন্ত্র ব্যবহারের মাধ্যমে চাইলে ঘরোয়া ভাবে বাতের ব্যথা দূর করতে পারেন ।

বাতের ব্যথা কমানোর ঔষধ নিয়ে শেষ কথা


বাতের ব্যথা কমানোর ঔষধ হিসেবে আপনি অনেক রকম মাধ্যম উপরোক্ত বর্ণনার মাধ্যমে পেয়েছেন বা পড়েছেন ।  আশা করি এই নিয়ে আপনার প্রশ্ন বা জিজ্ঞাসা থাকার কথাটা নই । তারপর ও বলব নিজেকে সচেতনতার সাথে বাতের ব্যথা কমানোর ঔষধ খাবেন । 


ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া বাতের ব্যথা কমানোর ঔষধ খাওয়ার চেয়ে ঘরোয়া ভাবে পরামর্শ গুলি মেনে চলার চেষ্টা করবেন । ভাল থাকবেন অন্য কোনদিন অন্য কোনো আর্টিকেল নিয়ে হাজির হবে সেই আশায় ।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

সবারজন্যে.কম এর নীতিমালা মেনে এ কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url

এইটা একটি বিজ্ঞাপন এরিয়া। সিরিয়ালঃ ১