অ্যাপেল ওয়াচ এর দাম কত

অ্যাপেল ওয়াচ এর দাম কত

অ্যাপেল ওয়াচ এর দাম কত - এখন দিন দিন যুগ পরিবর্তন হচ্ছে । মানুষের রুচির পরিবর্তন হচ্ছে । আগে শিক্ষকদের হাতে, স্টুডেন্টদের হাতে বিভিন্ন রকম ঘড়ি বা ওয়াচ দেখা যেত। তাছাড়া ও অনেক মানুষের হাতে ক্যাসিও ঘড়ি বা ওয়াচ দেখা যেত বা ভিবিন্ন রকম চেইনের ঘড়ি দেখা যেত । ঠিক তেমন করে অ্যাপেল ওয়াচ মানুষের রোষানলে পড়ছে বর্তমানে। 

পোস্টসূচীপত্রকারণ প্রতিটা মানুষের হাতে এখন স্মার্ট ওয়াচ শোভা পাচ্ছে । বিশেষ করে স্টুডেন্টদের হাতে দেখা যাচ্ছে এই আপেল ওয়াচ ।  তাই এই ব্লগে আমরা অ্যাপেল ওয়াচ এর দাম কত তা জানব । তার আগে আর জানব। অ্যাপেল ওয়াচ বা স্মার্ট ওয়াচ কি? আপেল ওয়াচ প্রাইস ইন বাংলাদেশ ? বিশেষ করে অ্যাপেল ওয়াচ সম্পর্কে আলোচনা করবো । আশা করি সাথেই থাকবেন । 

অ্যাপেল ওয়াচ বা স্মার্ট ওয়াচ কি ?


অ্যাপেল ওয়াচ হলো অ্যাপেল এর একটি ঘড়ি। আর স্মার্ট ওয়াচ হচ্ছে আধুনিক ঘড়ি বা ওয়াচ। যদি ও স্মার্ট ওয়াচ নাম, কিন্তু মোবাইলের প্রায় ফিচার এখানে বিদ্যমান। তাই এটি স্মার্ট ওয়াচ। অ্যাপেল ওয়াচ মানে হলো অ্যাপেল কোম্পানির ওয়াচ। ২০১৪ সালে এই স্মার্ট ওয়াচ এর আবির্ভাব হবে বলে ঘোষণা দিলে অ্যাপেল কোম্পানি ২০১৫ সালে এই অ্যাপেল ওয়াচ বাজারে আনেন এই অ্যাপেল কোম্পানিটি। 


এই কোম্পানিটি বাজারে আনার পর থেকে এটির দর্শণীয়তার জন্যে এবং দারুন সব ফিচারের কারণে এটি বর্তমানে খুব জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।এবং এটি নান্দনিক ডিজাইনের হওয়াতে আরো বেশি প্রিয় নাম হয়ে উঠেছে এই অ্যাপেল ওয়াচ।  আর এই অ্যাপেল ওয়াচ এ সফ্টওয়ার ট্রেকিং এবং বিভিন্ন সব ওয়াচফেস সারা ফেলেছে বাজারে। তাই বর্তমানে অ্যাপেল ওয়াচ এর দাম কত এই প্রশ্ন সবার মুখে মুখে ।


অ্যাপল ওয়াচ ব্যবহারের সুবিধা  


অ্যাপেল ওয়াচ এর দাম কত

আমরা সবাই জানি ওয়াচ মানে ঘড়ি। আসলে এই কথাকে ঠিক রেখে আরো অনেক কিছু এই ডিভাইসের ভিতর ইন্সটল করে অ্যাপেল কোম্পানি বাজারে সারা ফেলেছে। তবে এটি শুধু ঘড়ি নই। অনেক দিক দিয়ে গ্রাহকদের সুবিধা দিয়ে থাকে। তবে মদ্য কথা হচ্ছে যদি অ্যাপেল কোম্পানির মোবাইল ব্যবহার করেন তাহলে আপনি এই অ্যাপেল ওয়াচের সুবিধা বেশি গ্রহণ করতে পারবেন। 

এই অ্যাপেল কোম্পানি তাদের ইকোসিস্টেমের সাথে তাদের ডিভাইসগুলিকে খুব ভাল করে যুক্ত করতে পারে বলেই এই ওয়াচ এর সুবিধা তারা বেশি উপভোগ করতে পারে। তাই আইফোন ব্যবহার কারীরা বেশি ভাল করেই এই অ্যাপেল ওয়াচ এর আনন্দ উপভোগ করে থাকেন। 

তবে আইফোন ব্যবহার কারী ছাড়াও আপনি স্মার্ট ওয়াচ ব্যবহার করতে পারেন। এতেও একই সুবিধা আপনি পাবেন।   তাহলে চলুন দেখে আসি অ্যাপেল ওয়াচ আমাদের কি কি সুবিধা দিয়ে থাকে। যেইসব সুবিধা গুলি অ্যাপেল ওয়াচ আমাদের দিয়ে থাকে যেমন ঃ
 

ফলাইনে অডিও শোনা


আপনি এই অ্যাপেল ওয়াচ এ ইন্টারনেট সংযোগের মাধ্যমে অডিও গান শুনতে পারবেন। আবার অফলাইনেও মোবাইল থেকে ব্লুটুথের মাধ্যমে ও অডিও গান শুনতে পারবেন। কারণ এই অ্যাপেল ওয়াচে মোবাইলের মত স্টোরেজ রয়েছে। যা আপনাকে অডিও গান সংরক্ষন করার জন্যে সুবিধা প্রদান করবে। 


তাছাড়া ও এই অ্যাপেল ওয়াচ যেহেতু একই কোম্পানির তাই আইফোনের সাথে খুব ভাল করে খাপ খায়। যা আপনাকে একটি বাড়তি সুবিধা দেই। কিন্তু এই অ্যাপেল ওয়াচ সতন্ত্র ডিভাইজ হিসেবে ও কিন্তু কাজ করে। তাই এটি দিয়ে আপনি নিজস্ব ডাটা প্রবেশ করতে পারবেন। কল করতে পারবেন। মেসেজ দিতে পারবেন। এমনকি ওয়াইফাই এবং জিপিএস এর মত সকল সুবিধা আপনি উপভোগ করতে পারবেন ।


রিমোট কন্ট্রোল


আগেই বলেছিলাম এটি শুধু ঘড়ির কাজ করে না অন্যান্য কাজ ও করে থাকে। অ্যাপেল ওয়াচ দিয়ে আপনি রিমোর্ট কন্ট্রোলের কাজ করতে পারবেন। যদি আপনার ঘরে অ্যাপেল টিভি থাকে বা স্মার্ট টিভি থাকে সেটি এই অ্যাপেল ওয়াচ এর মাধ্যমে নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন। তাছাড়াও আরো আছে আপনি অন্য সব স্মার্ট ডিভাইস গুলি ও নিয়ন্ত্রণ নিতে পারবেন রিমোট কন্ট্রোলের মাধ্যমে এই অ্যাপেল ওয়াচ দিয়ে ।

মেসেজের রিপ্লাই দেয়া ও কল রিসিভ করা


যে কাজটি আপনি আগে মোবাইল বের করে হাতে টিপে করতে হত সেই কাজটি এখন আপনি এই অ্যাপেল ওয়াচ দিয়ে করতে পারবেন অনায়াসে। আপনার মোবাইলের যেকোন কিছুর মেসেজ যেমন হোয়াটস্যাপ, মেসেঞ্জার, ইনবক্সের মেসেজ সব কিছুর রিপ্লাই আপনি এই অ্যাপেল ওয়াচ দিয়ে দিতে পারবেন।

এমনকি আপনি নিজে লিখে সেই মেসেজের রিপ্লে দিতে পারবেন। এবং কল রিসিভ করে কথা বলতে পারবেন এই অ্যাপেল ওয়াচ দিয়ে। আপনি চাইলে কল কেটে দিতে পারবেন রিসিভ করতে পারবেন। এক কোথায় সব কিছু পারবেন ।

অ্যাপল পে


যদিও এই পেমেন্ট সিস্টেমটি যতাযত প্রয়োগ আমাদের দেশে নেই। তবু অন্যান্য দেশে এই অ্যাপেল ওয়াচ  এর মাধ্যমে তারা ভিবিন্ন রকম শপিং করে থাকে যেকোন জায়গা থেক  এনএফটি ফিচার ব্যবহারের মাধ্যমে ।


স্বাস্থ্য ও ফিটনেসের দিকে খেয়াল রাখা


স্বাস্থ্য সচেতনতার ক্ষেত্রে এই অ্যাপেল ওয়াচ একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। যারা খুব স্বাস্থ্য ও ফিটনেস এর দিকে সচেতন এবং খুব খেয়াল রাখে তাদের জন্যে এটি অ্যাপেল ওয়াচ এ এমন সিস্টেম করে দিয়েছে যে, আপনি কতক্ষন ঘুমাবেন সেটি সেট করা যায়। 

এবং কতক্ষন পর্যন্ত আপনি ব্যায়াম করেছেন বা কোনদিন কতক্ষন শরীর চর্চা করেছেন তা ট্রেক করতে পারবেন। প্রতিদিন আপনি কতটুক হাঁটলেন সেটিও এই অ্যাপেল ওয়াচ দিয়ে আপনি ট্রেক করতে পারবেন।  একথায় এই অ্যাপেল ওয়াচ একটি অনবদ্য ডিভাইস

দ্রুত ফোনের নোটিফিকেশন দেখে নেয়া


আমাদের হাতের কাছে থাকা মোবাইলটি ভিবিন্ন কারণে আমাদের দেখা হয়ে উঠে না। অনেক রকম কর্ম ব্যস্ততার জন্যে। কিন্তু এই অ্যাপেল ওয়াচ টি সেই আপনার সেই গুরুত্বপূর্ণ কাজটি করবে। অনেক সময় আপনার কিছু প্রয়োজনীয় নোটিফিকেশন আমরা দেখতে পারি না।  


কিন্তু এখন হাতের মধ্যে এই স্মার্ট ওয়াচ বা অ্যাপেল ওয়াচ থাকলে সেই নোটিফিকেশন আসা মাত্রই সেটি ভাইব্রেড করে আপনাকে জানিয়ে দেবে। এবং আপনি সেই নোটিফিকেশ এর জবাব দিতে পারবেন এই অ্যাপেল ওয়াচ এর মাধ্যমে । 


অ্যাপেল ওয়াচ প্রাইস ইন বাংলাদেশ


অ্যাপেল ওয়াচ প্রাইস এখন বাংলাদেশে ভিবিন্ন রকম মডেলের উপর ভিত্তি করে চলছে। তবে আমরা কিছু অ্যাপেল ওয়াচ এর দাম নিয়ে কথা বলব । যদি ও এদের দাম একটু বেশি তারপর ও বর্তমানে খুব চাহিদা রয়েছে ।

অ্যাপেল ওয়াচ এর দাম কত

 
অ্যাপল ওয়াচ আল্ট্রা ২ - ৯৮৯৯৯/= টাকা  
অ্যাপল ওয়াচ সিরিজ ৯ - পূর্বে ৬১৯৯৯/=  টাকা  বর্তমান ৫৫৯৯৯/= টাকা
অ্যাপল ওয়াচ সিরিজ ৮ - ৪৪৯৯৯/=টাকা 
স্পোর্ট ব্যান্ড সহ অ্যাপল ওয়াচ সিরিজ ৭ অ্যালুমিনিয়াম কেস - ৩৯৫০০/= টাকা
অ্যাপল ওয়াচ নাইকি সিরিজ ৭ অ্যালুমিনিয়াম কেস নাইকি স্পোর্ট ব্যান্ড - ৫০৯৯৯/=  টাকা

অ্যাপেল ওয়াচ এর তুলনায় এই স্মার্ট ওয়াচ এর দাম অনেকটা কম রয়েছে । যদি ও অ্যাপেল ওয়াচ এর মত টেকসই না হলে ও দেশিও স্মার্ট ওয়াচ ও এখন অনেক ভালই চাহিদা রয়েছে । কিছু স্মার্ট ওয়াচ এর বাংলাদেশ প্রাইস নিচে দেওয়া হল ।

Yison Celebrat SW2Pro ব্লুটুথ কলিং স্মার্ট ওয়াচ - মূল্য 1,520
ingyun X2 স্মার্ট ওয়াচ - মূল্য 1,600 টাকা 
Xingyun X1 স্মার্ট ওয়াচ - মূল্য 1,700 টাকা
Yison Celebrat SW6Pro ব্লুটুথ কলিং স্মার্ট ওয়াচ - মূল্য 1,750 টাকা
XTRA Active S8 Bluetooth কলিং স্মার্টওয়াচ 2,299 টাকা
Udfine ওয়াচ স্টারি ব্লুটুথ কলিং স্মার্টওয়াচ 3,450 টাকা
Udfine ওয়াচ জিএস ব্লুটুথ কলিং জিপিএস স্মার্টওয়াচ 4,850 টাকা
HW9 Ultra Max 49mm AMOLED ব্লুটুথ কলিং স্মার্ট ওয়াচ 2,750 টাকা

অ্যাপেল ওয়াচ এর দাম কত এই নিয়ে শেষ কথা 

অ্যাপেল ওয়াচ এর দাম কত এই নিয়ে আশা করি আর কিছু বলার নেই । যদিও আমরা অ্যাপেল ওয়াচ এর দাম কত নিয়ে নিবন্ধে লিখেছি এবং এর সাথে অ্যাপেল ওয়াচের সুবিদা ও বলার চেষ্টা করেছি । তবে আপনারা শোরুমে গিয়ে এই অ্যাপেল ওয়াচ কিনবেন । তাতে আপনি জিতবেন বই ঠকবেন না । আশা করি আপনাদের প্রয়োজনে আসবে। ধন্যবাদ।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

সবারজন্যে.কম এর নীতিমালা মেনে এ কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url

এইটা একটি বিজ্ঞাপন এরিয়া। সিরিয়ালঃ ১