আনার ফলের উপকারিতা ও অপকারিতা। আনার ফলের বিচির গুনাগুন ।

 

আনার ফলের উপকারিতা ও অপকারিতা

আনার ফলের উপকারিতা ও অপকারিতা : দেখতে বড়ই সুন্দর এই ফলটি কিন্তু খেতেও তেমন দারুন। অনেকে রাত্রে ডিনার করার পর ফল খাওয়ার অভ্যাস আছে প্রায় মানুষের। এটি শুধু ডিনার বলে কথা লাঞ্চের পর বা ব্রেকফাস্টের পর ও অনেকে ফল খাই। আমাদের নিত্যদিনের রুটিনে অনেকে এই আনার ফল রাখেন স্বাস্থ্যের জন্যে। 

কিন্তু অনেকে জানেনা যে আনার ফলের উপকারিতা ও অপকারিতা কি ? আজকের এই নিবন্ধে আমরা জানার চেষ্টা করবো আনার ফলের উপকারিতা ও অপকারিতা সম্পর্কে। এর সাথে জানার চেষ্টা করবো আনার ফল খাওয়ার নিয়ম, আনারের বিচি খেলে কি হয়, ডালিম বা আনার খেলে কী হয় এবং আরো কিছু বলার চেষ্টা করবো সঙ্গে থাকবেন। 
পোস্টসূচীপত্র

আনার ফল বা ডালিম অথবা বেদানা ফল কি ? 

আনার ফলের উপকারিতা ও অপকারিতা সম্পর্কে জানার আগে আমরা আনার ফল সম্পর্কে জানার চেষ্টা করি । আমরা হেডিং এ আনার ফলের আরো দুইটি নাম দিয়েছি। ডালিম বা বেদানা কেউ কেউ এই আনার ফলকে ডালিম ফল ও বলে থাকে । আবার অনেকে এই আনার ফল বা ডালিম ফল কে বেদানা ও বলে থাকি। 

যে যে নামেই ডাকুক না কেন, ফল এবং ফলের স্বাদ কিন্তু একই । হিন্ধুস্তানি , ফরাসি ভাষায় এবং পশতু ভাষায় এই ফলকে বলে আনার আবার কুর্দি ভাষায় বলে হিনার এবং সংস্কৃত ও নেপালি ভাষায় বলে দারিম। তবে আনার বা ডালিম ফল গাছ গুলি আকারে ৫-৭ মিটার পর্যন্ত হয়ে থাকে। 

এই গাছের মধ্যে যে ফল গুলি ধরে তা দেখতে ভিতরে লাল দানা দানা হয় এবং আমরা এই ফল্গুলি পরম স্বাদে উপভোগ করি। একেই আমরা আনার বা ডালিম অথবা বেদানা ফল বলে থাকি। এর বৈজ্ঞানিক নাম হচ্ছে Punica granatum । এর ইংরেজি নাম হচ্ছে পমেগ্রেনেট (pomegranate)।

নার ফলের কি কি ভিটামিন বিদ্যমান 

আনার ফলের উপকারিতা ও অপকারিতা সম্পর্কে বলতে গেলে বলা যায়।  আনার ফল বহু মাত্রিক গুনের সমাহার। তাই এই ফল আমাদের খুব বেশি প্রিয় । এই আনার ফলে আপনি পাবেন ভিটামিন K, ভিটামিন C এবং ভিটামিন B ।

আনার ফলের উপকারিতা ও অপকারিতা

এইগুলি ছাড়াও আরো রয়েছে আয়রন, জিঙ্ক এবং পটাশিয়াম এর মত গুন্ রয়েছে এই আনার ফল বা ডালিম বেদনা যায় বলেন না কেন। এবং শরীরকে চাঙ্গা রাখতে ওমেগা-৬ ফ্যাটি অ্যাসিডের মত প্রচুর পরিমান মিনারেল রয়েছে । তাই এই আনার ফলের গুনাবলি আপনাকে বলে বুজানো যাবে না। এই আনার ফল মানব দেহের বিভিন্ন ভিটামিন এর অভাব পূরন করার জন্যে দায়ী।  

আনার ফল খাওয়ার নিয়ম

আনার ফল খাওয়ার নিয়ম বলতে শুধু আনার ফল বলে কোন কথা নই সব ফলের ক্ষেত্রে একই। যেমন অনেকে মনে করে ভরা পেটে আনার ফল খেলে খুব ভাল হজম হয় বা ভাত খাওয়ার পর খেলে ভাল হয় । এটি বেশির ভাগ মানুষের মধ্যে এই ভুল ধারনা রয়ে গেছে । আনার ফলের উপকারিতা ও অপকারিতা সম্পর্কে শুধু নই আনার ফল খাওয়ার নিয়ম সম্পর্কে জানা দরকার। 

আসলে কিন্তু তা একদম বাস্তবে নই। ফল মুল সবসময় খালি পেটে খাওয়া ভাল। কারন ভরা পেটে ফল খেলে তা হজমের সমস্যা হয় এবং হজম হতে দেরী হলে তা বুক জ্বালা করার সম্ভবনা থাকে এবং ঢেকুর তুলে। 

অনেকে মনে করে আবার খালি পেটে খেলে অ্যাসিডিটির সমস্যা হয় । এটিও একদম ভুল ধারনা। খালি পেটে ফল খেলে শরীরের জন্যে খুব ভাল কারন ফলে যে এন্টিঅএক্সিডেন্ট থাকে তা আপনার শরীরের টক্সিন দূর করে । যা আপনার শরীরের জন্যে খুব উপাকারী। 

নারর বিচি খেলে কি হয় ? আনার ফলের বিচিতে কি উপকারিতা ও অপকারিতা আছে ? 

আনার ফলের উপকারিতা ও অপকারিতা নই শুধু, আনারের বিচি খেলে কি হয় তা জানুন আজকের এই নিবন্ধে । এই আনার ফল বা ডালিম ফল অথবা বেদানা ফল কেউ আনারের দানা সহ বিচি খেতে পছন্দ করে আবার অনেকে শুধু আনারের রস খেতে পছন্দ করে। 
এটি একেক জনের একেক পছন্দের ব্যাপার । কিন্তু অনেকে এই আনারের বিচির রহস্য বা গুনাগুন না জেনেই খাই না। আনার ফলের বিচির মানব দেহের অফুরন্ত উপাকার করে ছলে। এক কথায় বললে আনার ফলের উপকারিতার মতই এই আনার ফলের বিচির উপাকারিতা রয়েছে।  চলুন থাহলে এই আনারের বিচির উপকারিতা সম্পর্কে জেনে আসি। 

আনার ফলের উপকারিতা ও অপকারিতা

  • আনার বা ডালিমের বীজ খুব ফাইবার সমৃদ্ব 
  • যাদের শরীরে কোলেস্টেরল আছে তাদের কোলেস্টেরল কমায় এই আনারের বিচি । 
  • মানব দেহের মাথাব্যথা সহ যাদের মাইগ্রেনের সমস্যা রয়েছে তাদের জন্যে এই ডালিমের বিচি খুব উপাকারি।
  • রক্তের সমস্যা যাদের বিশেষ করে রক্তে হিমোগ্লুবিনের অভাব পূরন করে এবং মাত্রা বাড়ায় এই আনারের বিচি।
  • অনিয়ন্ত্রিত ঘুমকে স্বাভাবিক করে
  • মানব শরীরের ক্ষতিকারক পদার্থ থেকে রক্ষা করে  
আরো পড়ুন ঃ

আনার ফলের উপকারিতা ও অপকারিতা

বহু গুন সমৃদ্ব এই আনার ফল। আমাদের এই মানব শরীরের বহু ঘাটতি এবং ভিটামিনের অভাব পূরন করে এই আনার ফল । এটি খুব বেশি উপকারী একটি ফল। এটি মুখে বলে শেষ করা যাবে না । চলুন আমরা লিস্ট আকারে আনার ফলের উপকারিতা সম্পর্কে জেনে আসি। 
  • যাদের কোষ্টকাঠিন্য রয়েছে নিত্যদিন তাদের জন্যে এই আনার ফল খুব উপকারি 
  • আমরা যারা নিত্যদিন মানসিক চাপে থাকি তাদের মানসিক চাপ কমাতে সহায়তা করে
  • উপকারিতা হিসেবে আনার ফল হৃদ রোগের ঝঁকি কমিয়ে আনে 
  • রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্বি করে
  • যারা ত্বকের পরিচর্যা করেন তাদের ত্বকের সজিবতা ধারন করার ক্ষেত্রে বিশেষ ভুমিকা রাখে। 
  • মানব দেহের কোষের পুনরুজ্জীবন করে 
  • যাদের খাওয়ার পর হজমের সমস্যা হয় তাদের জন্যে খুব বেশি উপকারি 
  • ডায়াবেটিসের জন্যে খুব উপকারি একটি ফল এই আনার 
  • যাদের মুখে দুর্গন্ধ যায় তাদের মখ গহ্ববরে ইনসটেন্ট জীবনু মারতে সহায়তা করে 
  • অতিরিক্ত চুল পড়ার সমস্যা যাদের আছে তাদের জন্যে এই আনার ফল খুব উপকারী

আনার ফলের অপকারিতা 

আমরা জানি নিউটনের তৃতীয় সূত্র মতে, প্রত্যেক ক্রিয়ারই একটি সমার এবং বিপরীত প্রতিক্রিয়া রয়েছে । এই ডালিমের ক্ষেত্রে ও কিন্তু বেতিক্রম নই। টিক তেমন করে এই আনার ফলের উপকারিতা অপকারিতা দুটিই  রয়েছে । হয়ত বেশি না হলে খুব অল্প পরিমানে এর অপকারিতা গুলি আমরা লিস্ট আকারে বলার চেস্টা করছি । 
  • যাদের কম রক্তচাপ আছে তারা এই আনার বা ডালিম খাবেন না। 
  • সর্দি কাশি বা এলার্জি থাকলে এই আনার ফল খাওয়া যাবে না এতে উপাকারের চেয়ে অপকারিতা বেশি বলছেন ডাক্তার রা। 
  • মানসিক রোগে যারা আক্রান্ত তাদের জন্যে এই আনার বা ডালিম ফল খুব অপকারি।  

আনার ফলের উপকারিতা ও অপকারিতা এই নিয়ে শেষ কথা 

অনেক গুন সমাহারে ভরপুর এই আনার ফলের উপকারিতা ও অপকারিতা সম্পর্কে আমরা অনেক ক্ষন ধরে বক বক করেছি। জানিনা আপনাদের কতটুক ভাল লেগেছে। আমরা অনেক তথ্য উপাত্ত বের করে জেনে তারপর এই সম্পর্কে লিখেছি যাতে করে আপনাদের উপকারে আসে । 

এবং আশা করি আপনাদের জীবনে একটু হলেও কাজে আসবে আমাদের এই নিবন্ধটি । তাই সবাই ভাল থাকবেন, নিজের খেয়াল রাখবেন । আর ও হ্যা প্রতি সপ্তাহে অন্তত একটি করে হলেও আনার ফল খাবেন এইটা কিন্তু ভুলবেন না। 

প্রায় জিজ্ঞাসিত প্রশ্নাবলী (FAQ)

আনার ফল খেলে কি কি উপকার হয়?
হৃদরোগের ঝঁকি কমায়, কোষ্ঠকাঠিন্য রোধ করে, রক্তের হিমোগ্লুবিনের মাত্রা বাড়ায়, ত্বকের সজিবতা বাড়ায় , রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। আরো অনেক উপকার রয়েছে এই আনার ফলে।  
প্রতিদিন কত গ্রাম ফল খাওয়া উচিত?
পুরুষদের জীবন শুরুর ১৪ বছর থেকে একদম শেষ অবধি ২ কাপ করে ফল খাওয়ার জন্যে বলেছেন বিশেষজ্ঞরা। তবে সুস্থ থাকার জন্যে ফল খাওয়া খুবই জরুরি। 
আনার ফলে কি ভিটামিন আছে?
ভিটামিন বি,সি,  এবং কে। আরো আছে শর্করা,পটাশিয়াম, আয়রন এবং জিঙ্ক ।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

সবারজন্যে.কম এর নীতিমালা মেনে এ কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url

এইটা একটি বিজ্ঞাপন এরিয়া। সিরিয়ালঃ ১